মরহুম রজব আলী খান নজীব এর স্মরণে শোক সভা ও দোয়া মাহফিল

condolence meeting and prayer congregation for the death of rajab ali khan nojib

২০ আগস্ট ২০১৭ বিকেল ৫:০০টা জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের সভাকক্ষ

জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের সভাপতি জনাব মোহাঃ রজব আলী খান নজীব (দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ব্যক্তি) গতকাল ৮ আগস্ট ২০১৭ ভোর ৬:৩০ মিনিটে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

Read more

জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের বাজেট প্রতিক্রিয়ায় সংবাদ সম্মেলন

Press Conference on Budget 2017-18 Response of NFOWD

৪ জুন ২০১৭, বেলা: ২:০০টায় ঢাকাস্থ সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সেমিনার রুম এ জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের বাজেট প্রতিক্রিয়ায় জাতীয় বাজেট ২০১৭-১৮: প্রতিবন্ধী জনগণের প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি শীর্ষক সংবাদ সম্মেলন এর আয়োজন করা হয়।

Read more

এসডিজি (SDG) ভিএনআর (VNR) প্রতিবেদনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তি তথ্য অন্তর্ভুক্তকরণে ফোকাস গ্রুপ ডিসকাসন

২৭ এপ্রিল ২০১৭ বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় ফোরামের সভাকক্ষে

জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরাম বাংলাদেশে “সিটিজেনস প্ল্যাটফর্ম অন এসডিজি”এর সক্রিয় সদস্য। এবছরের জুলাই মাসে নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিতব্য “হাই লেভেল পলিটিক্যাল ফোরামে” বাংলাদেশ সরকার এসডিজি’র অগ্রগতির উপর একটি স্বেচ্ছাপ্রণোদিত প্রতিবেদন দেবার ব্যাপারে অঙ্গীকার করেছে। সরকারের পাশাপাশি সুশীল সমাজের পক্ষে এই সিটিজেনস প্ল্যাটফর্মও একটি প্রতিবেদন জমা

দেবার প্রস্তুতি নিয়েছে। এসডিজি’র মূল স্পিরিট হলো “লীভ নো ওয়ান বিহাইন্ড” অর্থাৎ কাউকে পেছনে ফেলে নয় বা কাউকে বাদ দিয়ে নয়। সে কারণেই এসডিজিতে যেমন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সংশ্লিষ্ট বিষয়সমুহকে যত্নসহকারে সন্নিবেশ করা হয়েছে, তেমনই প্রতিবেদনসমুহেও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অবস্থা বা অবস্থানেরও পৃথক বর্ণনার বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। পিছিয়ে পড়া অন্যান্য জনগোষ্ঠীর জন্যও একইভাবে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে এসডিজি প্রক্রিয়ায়। এই প্রতিবেদনটিতে যেন সঠিকভাবে সকল জনগোষ্ঠীর বাস্তব তথ্য উঠে আসে, সেকারণে প্ল্যাটফর্ম বেশ কিছু ফোকাস গ্রুপ ডিসকাশন (এফজিডি) আয়োজন করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৭ এপ্রিল ২০১৭ বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় ফোরামের সভাকক্ষে এফজিডি অনুষ্ঠিত হয়। “সিটিজেনস প্ল্যাটফর্মএর আহবায়ক, সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) এর সিনিয়র ফেলো এবং বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ডঃ দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য এটি পরিচালনা করেন। এবারে প্রতিবেদন হবে এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা ১, , , , ৯ এবং ১৪ এর উপর। তাই আলোচনাকে ফলপ্রসূ করার জন্য এই লক্ষ্যমাত্রাসমূহ, এদের টার্গেট, ইন্ডিকেটর এবং এর সাথে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সম্পৃক্ততা বিষয়ে আলোচনার জন্য সকল ধরণের প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গ, প্রতিনিধি, অভিভাবক, তাদের উন্নয়ন ও অধিকার আদায়ের লক্ষে নিয়জিত ব্যক্তিবর্গ, জাতীয় নির্বাহী সদস্যগণ, জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের সভাপতি ও মহাসচিব এবং সিপিডিএর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ এতে অংশগ্রহণ করেন।

১০ম বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস-২০১৭

Guest and Awrd winner with the Chief Guest Prime Minister Sheikh Hasina at 10th World Autism Awareness Day 2017

২ এপ্রিল, ২০১৭ সকাল ১০টা ওসমানি মিলনায়তন, পল্টন, ঢাকা

গত ২ এপ্রিল, ২০১৭ বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও যথাযোগ্য মর্যাদা ও গুরুত্বের সাথে এবারো ‘১০ম বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস’ ২০১৭ উদযাপন উপলক্ষে ক্রোড়পত্র ও ব্রশিওর প্রকাশ, আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় এর উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালায় বরাবরের মত জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউণ্ডেশন, সমাজসেবা অধিদফতর, বাংলাদেশ জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদ এবং জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরাম দিবসের সকল কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন করে। জাতিসংঘ কর্তৃক এবারের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘স্বকীয়তা ও আত্মপ্রত্যয়ের পথে’ (Toward Autonomy and Self Determination)। এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সারা দেশে ২ এপ্রিল বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস উদযাপিত হয়। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার শুভ আগমনের পর অনুষ্ঠানের আনুষ্ঠিনকতা শুরু হয়। চার ধর্মালম্বীদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থসমূহ পাঠের পর স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব মোঃ জিল্লার রহমান। এরপর বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কৃত স্থায়ী কমিটির সভাপতি জনাব মোঃ মোজাম্মেল হোসেন এমপি এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোহাম্মদ নাসিম এমপি। এরপর সভাপতির বক্তব্য প্রদান করেন জনাব নুরুজ্জামান আহমেদ এমপি, মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়।

এরপর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা অটিজম সম্পন্ন সফল ব্যক্তি, অটিজম উত্তরণে সফল সমাজকর্মী এবং অটিজম উত্তরণে অবদান রাখা সফল প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা প্রদান করেন এবং ফটোসেশন করেন।এরপর তিনি নীল বাতি প্রজ্বালন করেন এবং তার মুল্যবান বক্তব্য প্রদান ও দিবসের শূভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আগত অতিথিবৃন্দ অটিজম বিষয়ক একটি প্রামাণ্যচিত্র ও অটিস্টিক বন্ধুদের অংশগ্রহণে একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন এবং ফটোসেশনে অংশগ্রহণ করেন।

যে ৯জন ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠান পুরস্কার পেয়েছেন তারা হলেন:

অটিজম বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন সফল ব্যক্তি-০৩ (তিন) জন

১. আদিবা ইবনাত পশলা

২. আদিল মুনিম সাইফুল হক

৩. চৌধুরী গালিব আজিজ অনিন্দ্য,

অটিজম উত্তরণে অবদান রাখা সফল সমাজ কর্মী০৩(তিন) জন

১. ডাঃ রওনাক হাফিজ,

২. বেগম মারুফা হোসেন,

৩. কর্ণেল মোঃ শহীদুল আলম,

অটিজম উত্তরণে অবদান রাখা সফল প্রতিষ্ঠান ০৩(তিন)টি

১. সুইড বাংলাদেশ,

২. প্রজেক্ট ডাইরেক্টর,ইনষ্টিটিউট অব পেডিয়াট্রিক নিউরোডিজওর্ডার এন্ড অর্টিজম (ইপনা), বিএসএমএমইউ, শাহবাগ, ঢাকা।

৩. ফাউন্ডেশন ফর অর্টিজম রিসার্চ এন্ড এডুকেশন(এফএআরই),

৪র্থ জাতীয় ও ১২তম বিশ্ব ডাউনসিনড্রোম দিবস-২০১৭

Dr. Salina Akhter, Secretary General of NFOWD, is giving speech at World Down Syndrome Day 2017

২১শে মার্চ, ২০১৭ সকাল ১০টা সমাজসেবা অধিদফতর

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় এর উদ্যোগে গত ২১শে মার্চ ২০১৭, ৪র্থ জাতীয় ও ১২তম বিশ্ব ডাউনসিনড্রোম দিবস২০১৭ উদযাপনের অনুষ্ঠান সকাল ১০টায় সমাজসেবা অধিদফতরে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানগুলো হলো: চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা (ডাউন সিনড্রোম শিশুদের অংশগ্রহণ), রেলী, আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এবারের প্রতিপাদ্য– “আমাদের কন্ঠস্বর আমাদের সমাজে সরকারের সকল কাজে ডাউন সিনড্রোমেকে রাখবে পাশে”।

সকাল ১০:০০ টায় চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা উদ্বোধন করেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব মোঃ জিল্লার রহমান। বেলা ১১:০০টায় রেলীর নেতৃত্ব ও ১২:০০টায় আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব নুরুজ্জামান আহমেদ এমপি, মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার প্রধান অতিথি হিসেবে।

স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ডাউনসিন্ড্রোম এসোসিয়েশনের মহাসচিব ডাঃ অজন্তা রাণী সাহা। শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের মহাসচিব ড সেলিনা আখতার। ডাউনসিন্ড্রোম বিষয়ক আলোচনা করেন বাংলাদেশ ডাউনসিন্ড্রোম এসোসিয়েশনের সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ মেসবাহ উদ্দীন আহমেদ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য প্রদান করেনবঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতায় পরিচালিত ইপনার প্রকল্প পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ শাহীন আখতার। সভায় ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সমাজকল্যাণ মনস্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জনাব সুশান্ত কুমার প্রামানিক। সভাপতিত্ব করেন সমাজসেবা অধিদফতরের পরিচালক প্রশাসন ও অর্থ জনাব এ কে এম খায়রুল আলম। এরপর ডাউন্সচিলড্রেনদের অংশগ্রহণে সাংস্কতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। অনুষ্ঠানমালায় জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের সদস্য সংগঠনের প্রতিবন্ধী শিশুরা, অভিভাবক, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিগণ, সরকারী কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

আন্তর্জাতিক নারী দিবস ২০১৭

Human chain to observe International Women's Day 2017

৮-৩-১৭, মানববন্ধন ও র‌্যালী

আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন উপলক্ষে জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরাম ৮ মার্চ ২০১৭ বিকেল ৩টায় শাহবাগস্থ জাতীয় জাদুঘরের সামনে, মানববন্ধন ও রেলির আয়োজন করে। এবার নারী দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল : প্রতিবন্ধী নারীদের স্বাবলম্বী করি, টেকসই অর্থনীতির দেশ গড়ি।

Read more

আবাসিক প্রতিষ্ঠানে বসবাসরত প্রতিবন্ধী শিশুদের প্রমিত সেবামান নিশ্চিতকরণ বিষয়ক আলোচনা সভা (খুলনা)

Audience of Discussion Meeting on ensuring standerd service for Children with Disability

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ সকাল ১০টা স্কুল হেল্থ ক্লিনিক এর সম্মেলন কক্ষ, খুলনা

বাংলাদেশে প্রতিবন্ধী শিশুদের কোন সঠিক পরিসংখ্যান নেই। সেভ দ্য চিলড্রেনের একটি প্রতিবেদনে দেখা যায় যে, বাংলাদেশে ৭-১০ মিলিয়ন শিশু রয়েছে যারা কোনোনা কোনোভাবে প্রতিবন্ধী। দেশের বহুসংখ্যক প্রতিবন্ধী শিশু অবহেলিত এবং তারা রাস্তায় ও বস্তিতে বসবাস করছে। আবার সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন আবাসিক প্রতিষ্ঠানে অনেক প্রতিবন্ধী-অপ্রতিবন্ধী শিশুরা বসবাস করছে। কিন্তু এসব আসাবিক প্রতিষ্ঠানে বসবাসরত শিশুরা এমনকি প্রতিবন্ধী শিশুরাও নানা রকম সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

Read more

আবাসিক প্রতিষ্ঠানে বসবাসরত প্রতিবন্ধী শিশুদের প্রমিত সেবামান নিশ্চিতকরণ বিষয়ক মতবিনিময় সভা (রাজশাহী)

Guests of Discussion Meeting on ensuring standered services for children with disability

৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ সকাল ১০টা সভাকক্ষ, নান কিং চাইনিজ রেস্টুরেন্ট, রাজশাহী

বাংলাদেশে অপ্রতিবন্ধী শিশুদের চেয়ে প্রতিবন্ধী শিশুদের উপর সহিংসতা, নির্যাতন, অবহেলা ও শোষণের মাত্রা প্রায় চার গুণ। পরিবার, সমাজ এবং কর্মস্থলের বৈষম্য হলো প্রতিবন্ধী শিশুদের অধিকার লঙ্ঘনের মূলক্ষেত্র। আমাদের দেশে প্রতিবন্ধী শিশুদের কোন সঠিক পরিসংখ্যান নেই। সেভ দ্য চিলড্রেনের একটি প্রতিবেদনে দেখা যায় যে, বাংলাদেশে ৭-১০ মিলিয়ন শিশু রয়েছে যারা কোন না কোন ভাবে প্রতিবন্ধী এবং এই শিশুদের জন্য উপযুক্ত কোন নীতিমালা নেই।

Read more

জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের ২৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের ২৬তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ৫ ফেব্রুয়ারি রোববার বিকেল ৪ টায় ফোরামের সভাকক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত অতিথিবৃন্দ ফোরামের সাথে কতদিন থেকে কিভাবে সম্পৃক্ত আছেন সেই অভিমত ব্যক্ত করেন, এর উত্তোরোত্তর সাফল্য কামনা করেন। এই আনন্দঘন পরিবেশে মহাচিব ড সেলিনা আখতার গান পরিবেশন করেন। এরপর সবাই মিলে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কেক কাটেন।

প্রতিবন্ধী ব্যক্তি বিষয়ক জাতীয় কর্মপরিকল্পনা প্রনয়নের কর্মদলের প্রথম সভা

meeting on national strategy

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ বেলা ৩:০০টা জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের সভাকক্ষ‌ে

প্রতিবন্ধী ব্যক্তি বিষয়ক জাতীয় কর্মপরিকল্পনা প্রনয়ণের কর্মদলের প্রথম সভায় ড. সেলিনা আক্তার, মহাসচিব, জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরাম, উপস্থিত সকল সদস্যদের শুভেচ্ছা জানিয়ে সভার কাজ শুরু করেন। অতঃপর তিনি জাতীয় কর্মপরিকল্পনা প্রনয়ণে এ যাবৎকালীন সকল কার্যক্রম তুলে ধরেন। তিনি তার বক্তব্যে বিগত সময়ে বিভিন্ন আইন, নীতিমালা, ও কর্মপরিকল্পনা প্রনয়ণে সরকারের সহযোগী হিসেবে কার্যক্রম সম্পাদনে জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের অভিজ্ঞতা উল্লেখ করেন। এছাড়াও তিনি উল্লেখ করেন যে, অতীতের ন্যায় এবারও সরকার প্রতিবন্ধী ব্যক্তি বিষয়ক জাতীয় কর্মপরিকল্পনা খসড়া প্রনয়ণে সরকারের সহযোগী হিসেবে জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামকে দায়িত্ত্ব পালনের মৌখিক সম্মতি প্রদান করে। অতঃপর তিনি ডাঃ নাফিসুর রহমানকে সভাটি পরিচালনার দায়িত্ত্ব দেন। ডাঃ নাফিসুর রহমান তার বক্তব্যের শুরুতেই জাতীয় কর্মপরিকল্পনার সর্বশেষ খসড়া প্রনয়ণে সহযোগিতার জন্য এ্যাকসেস বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন কে ধন্যবাদ জানান এবং জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক দলিল সমূহের আলোকে কর্মপরিকল্পনা প্রনয়ণের প্রয়োজনীয়তা ব্যক্ত করেন। এরপর আলোচ্যসূচী অনুযায়ী আলোচনা শুরু হয় এবং এর প্রেক্ষিতে নিম্নে উল্লেখিত সিদ্ধান্তসমূহ গৃহিত হয়।

আলোচ্যসূচী- ১ :

দলের কর্মপরিকল্পনা তৈরী ও দায়িত্ত্ব বন্টন

১. সভায় সর্বসম্মতিক্রমে জনাব আশরাফুন নাহার মিষ্টিকে কর্মদলের সদস্য হিসেবে অর্ন্তভূক্ত করণের অনুমোদন হয়।

২. এ বিষয়ে অতিসত্তর সরকারের নিকট থেকে লিখিত অনুমতি সংগ্রহ করা।

৩. ১ম ধাপে জাতীয় ও আর্ন্তজার্তিক দলিলসমূহের প্রতিফলনে কর্মপরিকল্পনার প্রাথমিক কাঠামো তৈরীর লক্ষ্যে ৩ দিন ব্যাপী কর্মশালার আয়োজন করা। কর্মশালার স্থান হিসেবে কুমিল্লা র্বাডকে প্রাথমিক ভাবে নির্বাচন করা হয়।

৪. ২য় ধাপে প্রাথমিক কাঠামো তৈরীর পর এর উপর প্রতিবন্ধিতা নিয়ে কর্মরত সংগঠনসমূহের (ডিপিও) মতামত সংগ্রহের জন্য কর্মশালার আয়োজন করা ।

৫. ৩য় ধাপে বিভাগীয় পর্যায়ে সরকারী -বেসরকারী সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও ব্যক্তিবর্গ তথা অংশীজনের মতামত সংগ্রহের জন্য কর্মশালার আয়োজন করা।

৬. ৪র্থ বা শেষ ধাপে সংশ্লিষ্ট সকলের মতামতের আলোকে কর্মপরিকল্পনাটি সমৃদ্ধকরনের পর তা জাতীয় পর্যায়ে আলোচনা সভার মাধ্যমে উপস্থাপন করা।

আলোচ্যসূচী- ২ :

পূর্ববর্তী জাতীয় কর্মপরিকল্পনা (খসড়া) পর্যালোচনা

আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ পরবর্তী সভার তারিখ নির্ধারন করা হয়।

আলোচ্যসূচীতে আর কোন বিষয় না থাকায় ড. সেলিনা আক্তার, মহসচিব, জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরাম সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।